থ্যাঙ্কস গিভিংয়ে যুক্তরাষ্ট্রে ৯৩ কোটি ডলারের টার্কি বেচাকেনা

0
114

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) যুক্তরাষ্ট্রে পালিত হয়েছে কৃতজ্ঞতাজ্ঞাপন দিবস বা থ্যাঙ্কস গিভিং ডে। থ্যাঙ্কস গিভিং ডে’র অর্থ কৃতজ্ঞতাজ্ঞাপন বা ঈশ্বরকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন দিবস।

প্রতি বছর নভেম্বর মাসের চতুর্থ বা শেষ বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রে সরকারিভাবে থ্যাংকস গিভিং ডে উদযাপন করা হয়। দিবসটিতে ধনী-গরিব সবাই মেতে ওঠে ঐতিহ্যবাহী টার্কি ভোজে। পারিবারিকভাবে প্রতিটি ঘরেই টার্কি দিয়েই চলে দুপুর ও রাতের খাবারের ব্যবস্থা। এবারের থ্যাঙ্কস গিভিং ডেতে যুক্তরাষ্ট্রের ৩৩ কোটি ৩৭ লাখ মানুষের জন্য ৯২ কোটি ৭০ লাখ ডলার মূল্যের টার্কি বিক্রি হয়েছে; যা গত বছরের তুলনায় ১৪ মিলিয়ন ৪০ লাখ ডলার বেশি।

ন্যাশনাল টার্কি ফেডারেশনের তথ্য অনুসারে থ্যাঙ্কস গিভিংয়ে শতকরা ৮৮% শতাংশ মার্কিনিদের ঘরেই টার্কি দিয়ে দুপুর ও রাতের খাবারের ব্যবস্থা হয়ে থাকে।

গত বছর করোনা মহামারিতেও ২৯ কোটি ২০ লাখ মার্কিনি এ বার্ষিক ভোজ উপভোগ করতে সমবেত হয়েছিল। চলতি বছরে আরও ৭ লাখ টার্কিপ্রেমী বৃদ্ধি পেয়েছে। গত বছর থ্যাঙ্কস গিভিংয়ে মোট ৭৮ কোটি ৩০ লাখ ডলারের টার্কি বেচাকেনা হয়েছিল। এ বছর ১৪ কোটি ৪০ লাখ বৃদ্ধি পেয়ে মোট ৯২ কোটি ৭০ লাখ ডলারের টার্কি বেচাকেনা হয়েছে। গত বছরের তুলনায় এবারে থ্যাঙ্কস গিভিংয়ে টার্কির প্রতি পাউন্ড মূল্য কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে। এবার ১৬ পাউন্ড টার্কি বিক্রি হয়েছে ২০.১৫ ডলারে।

১৬২১ সালের এক হেমন্তে আমেরিকার আদি জনগোষ্ঠীর সঙ্গে প্রধানত ইংল্যান্ড থেকে আগত যাজকদের এক শুভক্ষণে পরস্পরের মধ্যে উৎপাদিত শস্য এবং পণ্য বিনিময়ের মধ্য দিয়ে ‘থ্যাংকস গিভিং’ উৎসবের সূত্রপাত হয়। এর ধারাবাহিকতায় ১৮৬৩ সালে প্রেসিডেন্ট আব্রাহাম লিংকন সেদিনের সেই বন্ধুত্ব এবং শান্তির অমিয়বাণী আমেরিকাবাসীর অন্তরে ধারণ করতে রাষ্ট্রীয়ভাবে দিনটিকে ‘থ্যাংকস গিভিং হলি ডে’ হিসেবে ঘোষণা করেন। সেই থেকে প্রতি বছর বন্ধুত্ব ও সংহতি প্রকাশের ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটকে স্মরণীয়-বরণীয় করে তুলতে নানা আয়োজনে মেতে উঠে সমগ্র যুক্তরাষ্ট্র।

দিনটি আমেরিকায় সরকারি ছুটির দিন। একই আমেজে পার্শ্ববর্তী দেশ কানাডাতেও এ দিনটি পালন করা হয় প্রতি বছর অক্টোবর মাসের দ্বিতীয় সোমবার।

থ্যাংকস গিভিং ডে’র পরের দিনকেই ‘ব্লাক ফ্রাইডে’ বলা হয়ে থাকে। এ দিনের জন্যও মানুষের অপেক্ষার কমতি নেই। এক বছর ধরেই অপেক্ষার প্রহর গুনতে থাকে আমেরিকার দুই-তৃতীয়াংশ মানুষ। এই দিনে অনেকের চাহিদা ইলেক্ট্রোনিক্স দ্রব্যে। এর মধ্যে টিভি, ফ্রিজ, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, আইফোন, আইপ্যাড ইত্যাদি দ্রব্যের প্রতি মানুষের বেশি চাহিদা। বৃহস্পতিবার রাত ১২টা থেকে দোকানের সামনে লাইন ধরে অপেক্ষা করে ভোর ৬টা পর্যন্ত অপেক্ষা করেন দোকানে প্রবেশের জন্য। কিন্তু প্রতি বছরই ঘটে ব্যতিক্রম ঘটনা। বৃহস্পতিবার রাত ১২টার পরিবর্তে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৮-৯টা থেকেই লাইনে দাঁড়িয়ে যান হাজার হাজার মানুষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here