কন্যা দিবসে সুইডিশ রাষ্ট্রদূত হলেন বাংলাদেশি শিক্ষার্থী রুনা

0
74

বাংলাদেশি শিক্ষার্থী রুনা একদিনের জন্য সুইডিশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত হলেন।

সোমবার আন্তর্জাতিক কন্যাশিশু দিবস উপলক্ষ্যে কন্যাশিশুদের সমান সুযোগ ও অধিকারের বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টিতে রুনাকে একদিনের প্রতীকী রাষ্ট্রদূত নিযুক্ত করে সুইডেনের দূতাবাস।

নারী ও শিশু অধিকার নিশ্চিতের পাশাপাশি কমিউনিটি স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য হিসেবে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধেও কাজ করেন তিনি।

প্ল্যান ইন্টারন্যাশনালের বিশ্বব্যাপী পরিচালিত ‘গার্লস টেকওভার’ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে তাকে একদিনের জন্য প্রতীকী রাষ্ট্রদূত নিযুক্ত করা হয়।

প্রতি বছর ১১ অক্টোবর আন্তর্জাতিক কন্যাশিশু দিবস উপলক্ষ্যে এ আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থাটি বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের কন্যা শিশুদের কর্মকাণ্ড, নেতৃত্ব ও ক্ষমতায়নের বিষয়ে বিনিয়োগ বাড়ানোর আহ্বান জানিয়ে এ কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে।

প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ চলতি বছরের অক্টোবর মাসে দেশজুড়ে রাজনীতি, প্রশাসন, কূটনীতি ও ব্যবসার মতো প্রায় ৭০টি ক্ষেত্রে কন্যাশিশু ও নারীদের ন্যায্যতা, স্বাধীনতা ও প্রতিনিধিত্ব তুলে ধরতে এই ধরনের প্রতীকী ক্ষমতায়ন করবে।

একদিনের রাষ্ট্রদূত হতে পেরে উচ্ছ্বসিত বাংলাদেশি রুনা। তিনি বলেন, আমাদের সমাজে অধিকাংশ মেয়েই জানে না যে তাদের উচ্চপদে যাওয়ার, নেতৃত্ব দেওয়ার ও সমাজ পরিবর্তনের ক্ষমতা আছে।

রুনা বলেন, নিজের ভেতর আত্মবিশ্বাস পাচ্ছি যে, আমি নেতৃত্ব দিতে পারব। আমার নেতৃত্বের মাধ্যমে অনেক মেয়েকে উন্নত সুযোগ সম্পর্কে প্রভাবিত করতে পারব।

রুনা একটি তরুণ দলের সদস্য। যেখানে তিনি কিশোর-কিশোরীদের সঙ্গে শিশুদের শিক্ষা এবং নারীদের অধিকার ও বাল্যবিবাহের বিরুদ্ধে সচেতনতা সৃষ্টিতে কাজ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here