কাবুলে বন্ধ নারী মালিকানাধীন রেস্টুরেন্ট, চাকরিচ্যুত নারী কর্মীরা

0
124

তালেবান আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলের প্রায় দুই মাস পরও কাবুলে বন্ধ রয়েছে নারীদের মালিকানাধীন রেস্টুরেন্টগুলো।

তিন বছর আগে কাবুলে ৩০ লাখ আফগানি বিনিয়োগ করে একটি ক্যাফে খুলেছিলেন নিকি তাবাসসুম। ক্যাফে থেকে প্রতিদিন ২০ হাজার আফগানি আয় করতেন তিনি। কিন্তু বিগত সরকার পতনের পর তার ক্যাফের সব নারী কর্মীই চাকরি হারিয়েছেন।

টোলো নিউজকে তিনি জানান, তালেবান কাবুল দখলের পর থেকেই তার ক্যাফে বন্ধ রয়েছে। তার সহকর্মীরা চাকরি হারিয়েছেন।

তিনি বলেন, ওই নারীরাই পরিবারের প্রধান উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। তাই চাকরি না থাকায় তাদের পরিবার অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে পড়েছে। পরিবারের সদস্যদের খাবার জোটানোর জন্য চাকরিহারা নারীরা জীবিকার সন্ধানে হন্যে হয়ে ঘুরছেন বলে জানান তাবাসসুম।

এ ব্যাপারে চাকরিহারা নারী কর্মী সাবরিনা সুলতানি জানান, দুই বছর ধরে ক্যাফেতে চাকরি করে সংসার চালাতেন তিনি। চাকরি হারিয়ে বিপাকে পড়েছেন।

চাকরিহারা নারীদের জন্য কাজের সুযোগ সৃষ্টির আহ্বান জানিয়েছেন ক্যাফের কর্মীরা।

টোলো নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তালেবান ক্ষমতা নেওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত লাখ লাখ আফগানি ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন নারী কর্মীরা।

এ ব্যাপারে কাবুল ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের প্রধান নুর-উল-হক ওমরি জানান, নারীদের নেতৃত্বাধীন ব্যবসা প্রতিষ্ঠাগুলো বন্ধ রয়েছে। নারী কর্মীরা চাকরি হারিয়েছেন। দীর্ঘদিন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় নারী উদ্যোক্তারা হারিয়েছেন মূলধন। অনেক নারী ব্যবসায়ীই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মূল্যবান জিনিসপত্র কম দামে বিক্রি করে দিচ্ছেন।

বিগত বছরগুলো আফগানিস্তানে বেশ কয়েকজন নারী উদ্যোক্তা ব্যবসায় বিনিয়োগ শুরু করেছিলেন। তবে তালেবান ক্ষমতা দখলের পর সব যেন থমকে গেছে।

যদিও নারী মালিকানাধীন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার ব্যাপারে তালেবানের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here