সভাপতি তালেব ,সম্পাদক মোহাম্মদ আলী

0
3
সভাপতি তালেব ,সম্পাদক মোহাম্মদ আলী

নরসিংদী জেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক  সম্মেলন অত্যান্ত বর্ণিল সাজে শনিবার (১৭সেপ্টেম্বর) মোসলেহ উদ্দিন ভূইয়া স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জি.এম তালেবের সভাপতিত্বে ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলীর সঞ্চালনায় ভার্চুয়ালে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন   বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এসময় তিনি বলেন, বাংলাদেশ এগিয়ে যাক, সেটা বিএনপি-জামায়াত চায় না। তারা সব সময় ষড়যন্ত্র করে। তারা দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা বাধাগ্রস্ত করতে চায়। কিন্তু আওয়ামী লীগ জনগনের দল বলে কোন ষড়যন্ত্র করে ঠিক থাকতে পারেনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বলেই উন্নয়ন হচ্ছে।উন্নয়নের যাত্রা অব্যাহত রাখতে হলে সরকারের ধারাবিকতা থাকা প্রয়োজন।

তিনি আরও বলেন, দুুর্নীতির কারণে বিএনপি, জনবিচ্ছিন্ন দলে পরিণত হয়েছে। পক্ষান্তরে আওয়ামীলীগ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সুসংগঠিত ও শক্তিশালী একটি রাজনৈতিক দল। বিএনপি নির্বাচনের জন্য অযোগ্য হয়ে পড়েছে। খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান দুজনই দন্ডপ্রাপ্ত। আইন অনুযায়ী দুজনের একজনও নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবে না। ফলে জন বিচ্ছিন্ন বিএনপি ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে ক্ষমতায় যেতে ষড়যন্ত্র করে চলেছে। কিন্তু আওয়ামী লীগ প্রতিপক্ষের সব ধরনের ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করবে।

ওবায়দুল কাদের দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ঐক্যবদ্ধতার প্রতিক। ঐক্যের কোন বিকল্প নেই।  আওয়ামীলীগের সকল নেতাকর্মীকে ঐক্যবদ্ধ থেকে আগামী নির্বাচনের জন্য কাজ করে যেতে হবে। তিনি বলেন, দল করলে দলের নিয়ম মেনে চলতে হবে, অনিয়ম করে দলের মনোনয়ন দেওয়ার দিন শেষ। আওয়ামী লীগ বা শেখ হাসিনা চিরদিনের জন্য কাউকে নেতৃত্ব ইজারা দেয়নি।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ত্যাগী নেতারা আওয়ামীলীগের আস্থার ঠিকানা। দুঃসময়ের কর্মীরাই দলের আসল বন্ধু। ত্যাগী নেতাদের আর কোনঠাসা করে রাখা যাবে না। তাদেরকে স্থান দিতে হবে।

প্রায় সাড়ে ৭ বছর পর অনুষ্ঠিত হওয়া নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে জি এম তালেব হোসেনকে সভাপতি ও পীরজাদা মোহাম্দ আলীকে সাধারণ সম্পাদক করে নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের নবগঠিত কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করেন।

এর আগে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলির সদস্য কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত থেকে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন।

জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জিএম তালেব হোসেন’র সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থেকে দলকে সাংগঠনিক ভাবে মজবুত করতে দিকনির্দেশনা মূলক বক্তব্য রাখেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলী সদস্য এড. কামরুল ইসলাম এমপি, শিল্পমন্ত্রী এড. নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন এমপি, আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক এড. নজিবুল্লাহ হিরু, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মো. দেলোয়ার হোসেন, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি এমপি, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক এভ. মৃণাল কান্তি দাস এমপি,  আওয়ামীলীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শামসুন নাহার চাপা, শিল্প ও বানিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মো. সিদ্দিকুর রহমান, শ্রম জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক মো. হাবিবুর রহমান সিরাজ, কার্যনির্বাহী সম্পাদক ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, এড. এবি এম রিয়াজুল কবীর কাউসার, এড. সানজিদা খানম, সৈয়দ আবদুল আউয়াল শামীম, নরসিংদী -৫, রায়পুরা আসনের এমপি রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজু,  নরসিংদী জেলা আ’লীগের সাবেক সভাপতি, নরসিংদী-১ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য লে. কর্ণেল (অব:) মো. নজরুল ইসলাম হিরু বীরপ্রতিক, নরসিংদী-২ (পলাশ) আসনের সাংসদ ডা. আনোয়ারুল আশরাফ খান দিলীপ, নরসিংদী-৩ (শিবপুর) আসনের সাংসদ জহিরুল হক ভূঁইয়া মোহন. সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি তামান্না নুসরাত বুবলী, নরসিংদী জেলা পরিষদেও প্রশাসক আব্দুল মতিন ভূঁইয়া প্রমূখ।

পরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা এমপি ও দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সাথে পরামর্শ করে আগামী তিন বছরের জন্য ভারমুক্ত করে জিএম তালেব হোসেনকে পুনরায় সভাপতি ও পীরজাদা মোহাম্মদ আলীকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here