পদ্মা সেতু চালুর পর ‘যানবাহনশূন্য’ দৌলতদিয়া ফেরিঘাট

0
23

স্বপ্নের পদ্মা সেতু গত ২৫ জুন উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেটি চালু হওয়ায় অনেকটা যানবাহন শূন্য হয়ে পড়েছে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটের দৌলতদিয়াঘাট প্রান্ত।

প্রতি বছর কুরবানির ঈদে যেখানে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার প্রবেশদ্বার দৌলতদিয়া প্রান্তে পারাপারের জন্য অপেক্ষা করত পশুবাহী অনেক ট্রাক। কিন্ত আজ সেই ঘাটে নেই তেমন কোনো যানবাহন।

ঘাট সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ঘাটে যানবাহন না থাকায় যাত্রীর দেখা মিলছে না। যেখানে দেশের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ নৌরুট মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ও রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ফেরিঘাটের চিত্র ছিল ভোগান্তির অপর নাম; সেই দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটের দৌলতদিয়া প্রান্ত এখন স্বস্তির অপর নাম হয়েছে।

স্বাভাবিক সময়ে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুট দিয়ে প্রতিদিন কয়েক হাজার যানবাহন ফেরিতে নদী পারাপার হতো। এখন পর্যাপ্ত ফেরি থাকলেও দুই-একটা গাড়ি আসছে। এবং সেই গাড়িগুলো সরাসরি ফেরিতে উঠে নদী পাড়ি দিয়ে চলে যাচ্ছে।

সোমবার সকাল থেকে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ মোড় থেকে দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক যানবাহন শূন্য দেখা যায়।

রাজবাড়ী থেকে ভানে কাঁঠাল বোঝাই করে দৌলতদিয়াঘাটে নিয়ে আসা ভ্যানচালক উজ্জ্বল বলেন, দুদিন ধরে ঘাটে কাঁঠাল বিক্রি করছি। আগে এই ফেরিঘাটে ঝালমুড়ি বিক্রি করতাম, এখন পেশা পরিবর্তন করে কাঁঠালের সময় কাঁঠালের ব্যবসা করে ভালো লাভ হচ্ছে।

কুষ্টিয়া থেকে দৌলতদিয়াঘাটে আসা লোকাল বাসের চালক চান্দু কাজী বলেন, সকালে আমাদের মায়ের আঁচল বাসে করে অল্পসংখ্যক লোক নিয়ে ঘাটে এসেছি। এখন যাত্রী শূন্য গাড়ি নিয়ে কুষ্টিয়ায় ফিরে যাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, যেখানে দূরপাল্লার পরিবহনেরই বাস নেই; সেখানে আমাদের গাড়িতে যাত্রী থাকবে কী করে?

এ বিষয়ে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহণের (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়াঘাট শাখার সহকারী ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) নাসির উদ্দীন খান যুগান্তরকে বলেন, পদ্মা সেতু চালু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে স্বাভাবিকভাবেই এই নৌরুটে যানবাহনের চাপ কমে গেছে। কিছু কিছু জেলার যানবাহন সরাসরি পদ্মা সেতু পাড়ি দিয়ে ঢাকাতে প্রবেশ করছে। বর্তমানে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ১৮টি ফেরি চলাচল করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here