১৩ বছর পর ‘গোল্ডেন ডাক’ সাকিবের

0
21

রীতিমতো দুঃস্বপ্ন দিয়ে সূচনা হয়েছে ঢাকা টেস্ট। টস জিতে ব্যাটিং নেওয়াটাই কাল হয়ে দাঁড়াল মুমিনুলদের।

৭ ওভারেই দলের অর্ধেক ব্যাটার হাওয়া। এর মধ্যে শূন্য রানে ফিরেছেন তিনজন! তিনজনের মধ্যে অলরাউন্ডার সাকিব মারলেন ‘গোল্ডেন ডাক’।

১৩ বছরের বেশি সময় পর টেস্টে প্রথম বলে আউট হলেন সাকিব আল হাসান। ক্যারিয়ারে প্রথম ‘গোল্ডেন ডাক’ পেয়েছিলেন তিনি সেই ২০০৯ সালের জানুয়ারিতে। প্রতিপক্ষ সেবারও ছিল শ্রীলংকা, চট্টগ্রামে এলবিডব্লিউ হয়েছিলেন অজান্ত মেন্ডিসের বলে।

সব মিলিয়ে টেস্ট ক্যারিয়ারে ১১১ ইনিংসে তার পঞ্চম শূন্য এটি।

পেসার রাজিথার তৃতীয় শিকার সাকিব। রাউন্ড দ্য উইকেটে ক্রিজের বেশ দূর থেকে করা তার ডেলিভারিটি লেগ সাইডে খেলতে গিয়ে মিস করেন সাকিব। বল লাগে পায়ে। জোরাল আবেদনে একটু ভেবে আঙুল তুলে দেন আম্পায়ার।

সাকিব রিভিউ নেন সঙ্গে সঙ্গেই। তবে রিভিউয়ে দেখা যায়, ব্যাটে লাগেনি বল। বল ট্র্যাকিংয়ে দেখা যায়, বল আঘাত করছিল লেগ স্টাম্পে। আম্পায়ার্স কলে টিকে থাকে সিদ্ধান্ত।

তার আগে শূন্য রানে ফেরেন অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম ইকবাল ও ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয়।

তাদের এমন বিদায়ে দলের হাল ধরতে পারেননি ওয়ান ডাউনে নামা নাজমুল হোসেন শান্ত ও অধিনায়ক মুমিনুল হক।

আসিথা ফার্নান্দোর বলে আউট হওয়ার আগে দুটি বাউন্ডারিতে মাত্র ৯ রান করতে সক্ষম হন মুমিনুল।

পেসার রাজিথার দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন শান্ত। তাকে বোল্ড করে দিলেন এ পেসার।

রাউন্ড দ্য উইকেটে এসে ক্রিজের বেশ দূর থেকে বল করেন রাজিথা। বল একটু ভেতরে ঢোকা বলে সামনে অনেক পা বাড়িয়ে খেলতে গিয়ে ব্যাট-প্যাডের মধ্যে ফাঁক রয়ে যায় অনেক। সেখান দিয়েই বল ভেতরে ঢুকে আঘাত করে স্টাম্পে। কয়েকবার ডিগবাজি খেয়ে স্টাম্প চলে যায় কিপারের কাছে।

১৭ বলে ৮ রান করে সাজঘরে ফিরেছেন শান্ত।

তার আগে মাঠে বল গড়াতেই আউট ওপেনার মাহমুদল হাসান জয়।

লঙ্কান পেসার কাসুন রাজিথার প্রথম ওভারের দ্বিতীয় ডেলিভারিতে ব্যাট প্যাডের ফাঁক গলে বোল্ড হয়েছেন জয়।

পরের ওভারেই বিদায় নেন অভিজ্ঞ তামিম ইকবাল। আসিথা ফার্নান্ডোর ওভারের চতুর্থ বলটি লেগ সাইডে খেলতে গেলে উল্টো দিকে বল উঠে যায়, জয়াবিক্রমের দুর্দান্ত ক্যাচ হন। তিনিও ফিরে যান রানের খাতা না খুলেই।

দলের এই চরম বিপর্যয়ে হাল ধরেছেন লিটন দাস ও মুশফিকুর রহিম।

এ প্রতিবেদন লেখার সময় ১১ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৩২ রান।

৪৭ বলে ২২ রান করে অপরাজিত মুশফিক। ৫৪ বলে ২৬ রানে লিটন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here