ঈদের পরে নয়, আন্দোলন চলছে: গয়েশ্বর

0
18

আঘাতের জবাবে পাল্টা আঘাত দেওয়ার প্রস্তুতি নিতে দলের নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

তিনি বলেন, ‘শুধু সরকার পতন আন্দোলন বা সরকার গঠন নয়, কিছু সংস্কারের মাধ্যমে নতুন বাংলাদেশ বিনির্মাণের ওপর গুরুত্বারোপ করতে হবে। ঈদের পরে নয়, আন্দোলন চলমান, আন্দোলন হবে। রক্তের বিনিময়ে অর্জিত বাংলাদেশে জনগণের বিজয় হবে, কোনো দলের নয়। আন্দোলনে জীবন গেলে যাক, তবু বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়াবে।’

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

‘নিউমার্কেটের ব্যবসায়ী ও ছাত্রদের সংঘর্ষের ঘটনায় চক্রান্তমূলকভাবে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাদের নামে মিথ্যা মামলা এবং গ্রেফতারের প্রতিবাদে’ সমাবেশের আয়োজন করে ঢাকা কলেজ ছাত্রদলের সাবেক ও বর্তমান নেতারা।

ঢাকা কলেজের সাবেক ভিপি ও বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপুর সভাপতিত্বে ও সাবেক ভিপি হারুনুর রশিদের পরিচালনায় আরও বক্তব্য দেন- ঢাকা কলেজের সাবেক ভিপি মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, সাবেক জিএস জাকির হোসেন, বিএনপির সহ-প্রচার সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল, যুবদলের নূরুল ইসলাম নয়ন, মৎস্যজীবী দলের ওমর ফারুক পাটোয়ারী প্রমুখ।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘আওয়ামী লীগ আওয়ামী লীগের জন্য, কখনো জনগণের জন্য নয়। হেলমেট বাহিনী গঠিত হয়েছে। এখন শুনছি যে হেলমেট (পরা হয়) আত্মরক্ষার জন্য। কিন্তু হেলমেট বাহিনী মারামারি করতে গেছে বলেই তো হেলমেট নিয়ে গেছে। নিউমার্কেটের দোকানদারেরা তো হেলমেট নিয়ে যাননি। হেলমেট বাহিনী নতুন কিছু নয়, অনেক পুরোনো ঘটনা। তাদের (সরকার) যেমন হেলমেট বাহিনী আছে, জনগণ যখন হাতুড়ি বাহিনী গড়ে তুলতে পারবে, তখনই তাদের পরাজিত করা যাবে।’

বিএনপির এই নেতা আরও বলেন, ‘নিউমার্কেটের ঘটনায় যাদের নামে মামলা দেওয়া হয়েছে, তাদের একজন ২০ বছর ধরে বিদেশে। এই দেশে মৃত মানুষের নামেও অনেক মামলা আছে। খুনখারাবি, চাঁদাবাজি, নারীদের ইজ্জত নিয়ে টানাটানি ইত্যাদি প্রতিদিন ঘটছে। তারপরও পুলিশ মামলা করে না।নিউমার্কেট এলাকায় যে ঘটনা ঘটেছে, তাতে ঢাকা কলেজের অগ্রজরা কষ্ট পান। দোষটা ছাত্রদের নয়, দোষ এই সরকারব্যবস্থা ও সরকারপ্রধানের চাওয়ার। খুনখারাবি, চাঁদাবাজি, নারীদের ইজ্জত নিয়ে টানাটানি ইত্যাদি প্রতিদিন ঘটছে। তারপরও পুলিশ মামলা করে না।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here