খুলনায় জেলা বিএনপির ইফতার মাহফিলে সংঘর্ষ, আহত ৫

0
25

খুলনা জেলা বিএনপির ইফতার মাহফিলে চেয়ারে বসা এবং আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

এসময় দুবৃর্ত্তদের দেশীয় অস্ত্রের আঘাতে জেলা যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক নাদিমুজ্জামান জনিসহ ৫ নেতা-কর্মী আহত
হয়েছেন। আহতরা খুলনার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

জানা যায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় খুলনা ক্লাবে জেলা বিএনপি ইফতারি মাহফিলের আয়োজন করে। এসময় মূল অনুষ্ঠানস্থলের বাইরে ইফতারির জন্য চেয়ারে বসা এবং আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র নগর ছাত্রদলের সাবেক নেতা কিমিয়া শাহাদাতের সাথে জেলা যুবদলের জনির বাগবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে নগর ছাত্রদলের আহ্বায়ক ইশতিয়াক আহমেদ ইস্তির নেতৃত্বে জনির ওপর হামলা করা হলে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

এসময় জনিসহ তেরখাদা যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক তৌহিদুর রহমান রাজু, দ্বারা, অলিদ এবং সোহাগ গুরুতর আহত হয়। এর আগে অবশ্যই ইস্তিকে মূল অনুষ্ঠানের স্থলে দেখা যায়।

আরও জানা যায়, সংঘর্ষের সময় প্রধান অতিথির বক্তব্য দিচ্ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব ও ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেল।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বিএনপি ও যুবদলের নেতাকর্মীরা আহতের দ্রুত হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।

এ বিষয়ে নগর ছাত্রদলের আহবায়ক ইশতিয়াক আহমেদ ইস্তি যুগান্তরকে জানান, আমি খুলনা ক্লাবের ইফতারিতেই ছিলাম না। নতুন রাস্তার মোড়ের আলফালা জামে মসজিদে ছাত্রদলের একটি ইফতারির আয়োজনে ছিলাম। আমার কোন অনুসারীও এই হামলার সাথে
জড়িত নয়। রাজনৈতিক গ্রুপিংয়ের কারণে আমার নামে অপপ্রচার করা হচ্ছে।

জেলা যুবদলের সভাপতি এস এম শামীম কবির যুগান্তরকে বলেন, যুবদলের ৫জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছে। কারা এই হামলা চালিয়েছে সেটা চিহ্নিত করে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। শুনেছি শাহাদাতের সাথে জনির বাগবিতণ্ডা হয়েছিল। তবে বিস্তারিত এখনও জানতে পারেনি।

জেলা বিএনপির আহবায়ক আমীর এজাজ খান যুগান্তরকে জানান, যুবদল নেতা জনির অবস্থা আশংকাজনক। সে বর্তমানে খুলনা সিটি
মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। ইফতারির অনুষ্ঠানে এমন ঘটনা অপ্রত্যাশিত। হামলাকারীদের চিহ্নিত করার জন্য তদন্ত শুরু করা হচ্ছে। জনির বুকে মারাত্মকভাবে জখম করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ইফতারির অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, খুলনা মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য
অ্যাড. শফিকুল আলম মনা, সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিন, নগরের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক তরিকুল ইসলাম জহির, খুলনা জেলা বিএনপির সদস্য সচিব এস এম মনিরুল হাসান বাপ্পী প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here