আইন করে রাশিয়ার সেই ‘রহস্যময়’ চিহ্ন নিষিদ্ধ করল এই দেশ

0
27

ইউক্রেন সংকট শুরু হওয়ার পর থেকে আলোচনায় আসছে ‘জেড’ , ‘ভি’ এবং সেন্ট জর্জ রিবনের মতো চিহ্নগুলো। রুশ সামরিক যানগুলোতে লেখা ইংরেজি শেষ অক্ষর ‘জেড’ কিংবা ‘ভি’কে বলা হচ্ছে রাশিয়ার যুদ্ধের প্রতীক।

এবার এইসব আপাত নিরীহ চিহ্নের ওপর নেমে এলো খড়গ। রীতিমতো আইন করে হয়েছে ‘জেড’ , ‘ভি’ এবং সেন্ট জর্জ রিবনসহ রাশিয়ার যুদ্ধের চিহ্ন নিষিদ্ধ করল ইউরোপের দেশে মলদোভা। বিবিসি শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

মলদোভার সংখ্যাগরিষ্ঠ ইউরোপপন্থী ৫৩ জন সংসদ সদস্যের ভোটে ওই আইন পাশ হয়। ওই আইনের আওতায় রুশপন্থী এসব প্রতীক তৈরি, বিতরণ, পরিধান এবং প্রদর্শনের ক্ষেত্রে জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে।

এদিকে, চলতি মাসেই ওই আইনের বিরুদ্ধে আবেদন করা রুশপন্থী বিরোধীদল ভোট বানচালের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয় বলে বিবিসি জানিয়েছে।

প্রসঙ্গত, ইউক্রেন সংকট শুরু হওয়ার পর থেকে দেশটিতে রাশিয়ার সামরিক ট্যাংক ও অন্যান্য সামরিক যানের উপস্থিতি নিয়মিত হয়ে উঠেছে। একই সঙ্গে নিয়মিত হয়ে উঠেছে রুশ সামরিক যানগুলোতে লেখা ইংরেজি শেষ অক্ষর ‘জেড’ চিহ্নও।

ইউক্রেন যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে এই যানবাহনগুলো কিয়েভ ও ইউক্রেনের অন্যান্য শহরগুলোর আশপাশে ঘুরে বেড়াচ্ছে। এসব যানবাহনের প্রত্যেকটিতেই আঁকা রয়েছে পুরু সাদা রঙে একটি ‘জেড’ চিহ্ন। কেবল তাই নয়, ইউক্রেনে রুশ সমর্থনকারীদের টি-শার্টেও আঁকা রয়েছে এই ‘জেড’।

এর রহস্য জানিয়ে দিয়েছেন রুশ থিংকট্যাংক গ্যালিনা স্টারভয়েটোভার ফেলো কামিল গালিভ। এক টুইটে তিনি জানিয়েছেন, ‘জেড’ হলো এমন একটি বর্ণ যেটিকে রাশিয়ার সামরিক বাহিনী ইউক্রেনের উদ্দেশে দেশত্যাগ করা যানবাহনের গায়ে লিখে দিচ্ছে। মাত্র কয়েক দিন আগেই উদ্ভাবিত নতুন এই প্রতীকটি রাশিয়ার নতুন আদর্শ ও জাতীয় পরিচয়ের প্রতীক হয়ে উঠেছে।’

শুধু সামরিক যান নয়, অনেক রুশ নাগরিক, ব্যবসায়ী এবং রাশিয়ার বাইরে থাকা রুশ সমর্থকেরা স্বেচ্ছায় এই চিহ্ন ব্যবহার করছেন। কেউ কেউ নিজেদের টি-শার্ট, কেউ জ্যাকেটে এমনকি গাড়িতেও ব্যবহার করছেন এই চিহ্ন।

রাশিয়া মঙ্গলবার একটি সয়ুজ রকেট উৎক্ষেপণ করেছে। ওই রকেটেও ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের সমর্থনে ‘জেড’ অক্ষর লেখা ছিল। তবে শুধু ইউক্রেন যুদ্ধের সমর্থনে ‘জেড’ই নয়, বিশ্বজুড়ে এই যুদ্ধের পক্ষে-বিপক্ষে ব্যবহৃত হচ্ছে ‘কিউ’ ও ‘ভি’সহ নানা চিহ্ন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here